বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০

সেলফোন ক্যান্সার- আপনার ফোন কতটা নিরাপদ?

প্রকাশ: ২০১৮-১১-০২ ০৯:১১:১৩ || আপডেট: ২০১৮-১১-০২ ০৯:১১:১৩

এই মুহুর্তে মানুষের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজনীয় বস্তু হচ্ছে মোবাইল ফোন। যেখানেই আপনি যান, সাথে আর কিছু না থাকুক, ফোনটা সাথেই থাকেই। এমনকি রাতে ঘুমানোর সময়েও ফোনটা বালিশের পাশেই থাকে। কিন্তু এই প্রিয় বস্তুটির অনিয়ন্ত্রিত ব্যবহার যে আপনার ক্ষতির কারণ হতে পারে তা কি জানেন? ক্ষতিটা কেমন তা শুনলে আপনার কিছুটা খারাপ লাগতে পারে। মুঠোফোনের ব্যবহারে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে মানুষের। এইরকমই তথ্য উঠে এসেছে একটি আমেরিকান গবেষণায়।

১৯৯৩ সালের সময়টার কথা বলছি। তখন আমেরিকায় প্রতি একশজন প্রাপ্তবয়ষ্ক মানুষের মধ্যে মাত্র ছয়জন মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতেন। যদিও তার এক যুগ আগে থেকেই আমেরিকার মার্কেটে মোবাইল ফোনের প্রচলন হয় এবং তখন কেউ মোবাইল ফোন বাজারে ছাড়ার আগে সেফটি চেকিং রাখার চিন্তাও করেনি। সরকারের পক্ষ থেকেও তেমন কোনো বাধ্যবাধকতা ছিল না।

কিন্তু, ১৯৯৩ সালে ড্যাভিড রেয়নার্ড নামে এক ভদ্রলোক এনইসি মোবাইল কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা করে দেন। তিনি অভিযোগ করেন এই কোম্পানির ফোন ব্যবহার করার কারণে তার স্ত্রীর মারাত্মক ব্রেইন টিউমার হয়। এই অভিযোগের কথা যখন রেয়নার্ড ন্যাশনাল টেলিভিশনে বলেন তখন এটি নিয়ে চারদিকে বেশ আলোচনার শুরু হয়। সবাই নড়েচড়ে বসেন।

ট্যাগ :