বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯

অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার পথে হাঁটবে “বাংলাধারা”

প্রকাশ: ২০১৯-০২-০২ ২৩:০০:৩৩ || আপডেট: ২০১৯-০২-০২ ২৩:৪৭:৪০

« ফেরদৌস শিপন  »

আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি।

ছোট-বড় সবাই জানেন, এটি আমাদের জাতীয় সঙ্গীতের একটি লাইন। ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ পল্টন ময়দানে ‘স্বাধীন বাংলা সংগ্রাম পরিষদ’ তাদের ইশতিহারে গানটিকে জাতীয় সঙ্গীত হিসেবে ঘোষণা করে। আর ‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’। যে গানের কথায় ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি সংঘটিত বাংলাভাষা আন্দোলনের করুণ ইতিহাস ফুঁটে উঠেছে। সেই একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের জনগণের গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন।

এটি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসাবেও সুপরিচিত। বাঙালী জনগণের ভাষা আন্দোলনের মর্মন্তুদ ও গৌরবোজ্জ্বল স্মৃতিবিজড়িত একটি দিন হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছে। তাই বলে ‘বাংলা’ আমাদের শেকড়ের টান। ‘বাংলা’ শব্দটি উচ্চারণ করতে গেলে আমাদের হৃদয়ে কম্পন তোলে। পৃথিবীর যেই প্রান্তে যারাই থাকুক না কেন ‘বাংলা’ শুনলেই মনপ্রাণ আকুল হয়ে উঠে। ‘বাংলা’ আমাদের মমতার সাথে মিশে গেছে। ভাষাভাষী যোগসূত্রও স্থাপন করে আসছে এই ‘বাংলা’। যেমন, আমাদের দেশের নাম বাংলাদেশ। আর আমাদের মুখের ভাষাও ‘বাংলা’।

অন্যদিকে ‘ধারা’ বলতে স্রোত, প্রবাহ আর গতিকেই বুঝি আমরা। যেমন, বাংলাদেশের উন্নয়নের স্রোত, অর্থনৈতিক প্রবাহ, চলমান গতিপথ পরিবর্তনের রীতি, সামাজিক, সাংস্কৃতি আর সম্পর্কের মহামিলনের অর্থই “বাংলাধারা”। চলছে ভাষার মাস। রক্তে রাঙানো সেই ফেব্রুয়ারি মাস, ভাষা আন্দোলনের মাস। এ দিন থেকে ধ্বনিত হবে সেই অমর সংগীতের অমিয় বাণী ‘আমার ভাই এর রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি।’ বাঙালি জাতি পুরো মাসজুড়ে ভালোবাসা জানাবে ভাষার জন্য আত্মদানকারী সকল শহীদদের প্রতি। আজকের বাংলাদেশ অনেক পরিবর্তন হয়েছে।

বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ।
দীর্ঘদীন স্বল্পোন্নত দেশের তালিকায় থাকার পর উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি পেল বাংলাদেশ। এটা বাংলাদেশ ও স্বাধীনচেতা বাঙালির হার না-মানা বীরত্ব, মেহনত এবং স্বপ্ন বুননের সোনালি প্রতিফলন সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার একটি বড় সোপান। স্বরণ করছি স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

তিনি উপহার দিয়েছেন, রূপবৈচিত্র্যে ভরা আমাদের এই বাংলাদেশকে।
বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কণ্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বগুনে প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যে ঘেরা বাংলাদেশ এখন অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় পথ চলছে। যার মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ, নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পায়রা গভীর সমুদ্র বন্দর, ঢাকা মেট্রোরেল, চট্টগ্রামসহ দেশের মেগা প্রকল্পসমূহ উল্লেখযোগ্য।

এছাড়াও কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, গ্রামীণ উন্নয়ন, অবকাঠামো, তথ্য-প্রযুক্তি, যুব উন্নয়ন, নারী উন্নয়ন ও বৈদেশিক সম্পর্কসহ উন্নয়নের বিভিন্ন খাতের সাফল্যের হিসেব শিখরে। বাংলাদেশের প্রাপ্তির খাতায় যুক্ত হয়েছে উন্নয়নশীল শব্দ। বাঙালি বিশ্বের গর্বিত জাতি। তার রয়েছে বিরল ক্ষমতা। বায়ান্নের ভাষা আন্দোলন ও একাত্তরে মহান মুক্তিযুদ্ধের মতো যুদ্ধজয়ী জাতি পৃথিবীতে আর দ্বিতীয়টি আছে বলে মনে হয় না। বারবার যারা শত্রুদলকে পরাভূত করে বিজয় ছিনিয়ে আনতে পারে তারা উন্নয়নশীলতার অহংকারী বোধশক্তিতে জাগ্রত হয়ে ভবিষ্যতে আরও বড় অর্জনকে পাকড়াও করবে, এতে কোনো সন্দেহ নেই।

দেশখ্যাত অর্থনীতিবিদের দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্যে আর মন্তব্যে শোনা যায়, ২০২৪ সাল পর্যন্ত দেশে আর নতুন কোনো চ্যালেঞ্জ নেই। চলমান যেসব প্রক্রিয়া রয়েছে সেগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবেই সম্পন্ন হবে। তবে ২০২৪ থেকে ২০২৭-এ আমাদের কিছু করণীয় রয়েছে। সে সময় অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, রপ্তানি বাড়ানো, দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বাড়ানোর প্রতি নজর দিতে হবে। কেননা ২০২৭ সালের পর নমনীয় ঋণগুলো কমে আসবে।

রপ্তানির ক্ষেত্রে ডিউটি ফ্রি, কোটা ফ্রি সুবিধাগুলো বাতিল হয়ে যাবে। ফলে বৈদেশিক ঋণ পরিশোধের দায়টা বেড়ে যাবে। যার প্রভাব সার্বিক অর্থনীতিতে কিছুটা হলেও পড়বে। ফলে এখন থেকেই আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। তাই দেশকে আরো অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি করতে হবে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে শিল্পের বিকাশের বিকল্প নেই।

এ জন্য আমদানি-নির্ভরতা কমিয়ে রফতানি সক্ষমতা অর্জন করতে হবে। রফতানির সক্ষমতা অর্জনের জন্য শিল্পের উন্নতি প্রয়োজন। বাংলাধারা ডটকম নিউজ পোর্টালটি সাজাতে ব্যতিক্রম কিছু উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাধারা ডটকম কতৃপক্ষ।

যেখানে নিয়মিত খবরের পাশাপাশি থাকছে, বাণিজ্যনগর, অর্থনীতি, আইন-আদালত, কম্পিউটার, ক্যম্পাস, খেলা, গণমাধ্যম, গবেষণা, ফ্যাশন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, বিনোদন, ব্যাংক-বীমা, ভিন্ন খবর, ভোজনবিলাস, মতামত, রাজনীতি, রাশিফল, রূপচর্চা, রেসিপি, লাইফস্টাইল, শেয়ারবাজার, সদাই, সাক্ষাৎকার, সাহিত্য সংস্কৃতি, সাক্ষাতকার, স্বাস্থ্যকথা সহ নানারকম সংবাদ।

যেখানে দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য আর অর্থনীতির সকল খবরাখবর অনলাইন পাঠকের কাছে খুব সহজে এবং অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তুলে ধরতে চায় “বাংলাধারা ডটকম”। বাংলাধারা ডটকমের সকল পাঠকের কাছে ভালো খবরটা পৌঁছে দিতে পারি। এ জন্যে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে বাংলা জুড়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকুক। নিয়ম অনুযায়ী তিন বছরে পরপর দুইবার সূচক অর্জন করলে চূড়ান্তভাবে একটা দেশকে মধ্যমআয়ের দেশ হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

আমাদের এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে এবং ২০২১ সালে আবারও তা নিশ্চিত করতে হবে একই সূচকগুলো অর্জনের মধ্যে দিয়ে। বঙ্গবন্ধু ও শহীদদের স্মরণ করি। শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা জানাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি। পরিশেষে সবাইকে অভিনন্দন।

সবসময় বাংলাধারা’র সাথে থাকুন।
নতুন কিছু জানুন।
জয়বাংলা।

 

 লেখক : ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, বাংলাধারা ডটকম।