বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০

পটিয়ায় ভিজিএফ চাল বিতরনে সমন্বয়হীনতার অভিযোগ

প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১৫ ১৭:১৭:৫৪ || আপডেট: ২০১৯-০৬-১৫ ১৭:১৮:০১

পটিয়া প্রতিনিধি »

পটিয়ায় সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনী কার্যক্রম (ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং) ভিজিএফ কর্মসূচির চাল বিতরণে সমন্বয়হীনতার অভিযোগ এনে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল শুক্রবার (১৪ জুন) উপজেলার ছনহরা ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। সকালে ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে চাল বিতরণ শুরু করলে স্থানীয় যুবলীগ নেতাকর্মীরা বাধা দেয়। দরিদ্রদের নামের তালিকা সমন্বয় না করার অভিযোগে বিতরণ বন্ধ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এসময় লোকজন উত্তেজিত হয়ে পড়লে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা যায়, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয় থেকে পটিয়া উপজেলার ১৭ ইউনিয়নের জন্য চাল বরাদ্দ হয়। ঈদের আগে উপজেলার প্রায় সব ইউনিয়নে চাল বিতরণ করা হলেও ছনহরা ইউনিয়নে চাল বিতরণ করা হয় নি।

মূলত নামের তালিকা সমন্বয় করতে স্থানীয় সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরী নির্দেশ দেন। কিন্তু নামের তালিকা সমন্বয় না করার কারণে যুবলীগের নেতাকর্মীরা চাল বিতরণে বাধা সৃষ্টি করেন।

ছনহরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ দৌলতী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও সংসদ সদস্যের উন্নয়ন সমন্বয়কারীকে নিয়ে নামের তালিকা তৈরি করেছেন বলে দাবি করেন। অহেতুকভাবে ভিজিএফের চাল বিতরণে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ দৌলতী অভিযোগ করেছেন, হুইপের উন্নয়ন সমন্বয়কারী আলমগীর খালেদের সঙ্গে সমন্বয় করেই নামের তালিকা তৈরি করেছেন। এখন যারা বাধা দিচ্ছেন তারা স্থানীয় যুবলীগ কর্মী। ঈদের আগে গরীব লোকের এসব চাল বিতরণ করার কথা থাকলেও কিছু লোকের কারণে তা সম্ভব হয়নি। হুইপ মহোদয়ের উন্নয়ন সমন্বয়কারী একজন হলেও এখানে ২৯জন সমন্বয়কারী দাবি করছেন। যার কারণে তিনি (চেয়ারম্যান) বিপাকে পড়েছেন।

ছনহরা ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আনোয়ার তালুকদারের অভিযোগ, স্থানীয়দের সাথে সমন্বয় না করে নামের তালিকা করা হয়েছে। যার ফলে প্রকৃত দরিদ্র পরিবারগুলো বাদ পড়েছে। এজন্য স্থানীয়রা চাল বিতরণ কর্মসূচি বন্ধ করে দিয়েছে।

পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান জানান, ঈদের আগেই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ভিজিএফের চাল বিতরণ করেছেন। নামের তালিকা সমন্বয় না করায় ছনহরা ইউনিয়নে চাল বিতরণ নিয়ে মূলত দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে। তবে শীঘ্রই নামের তালিকা সঠিকভাবে করে দরিদ্রদের মাঝে চাল বিতরণ করা হবে।

হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর উন্নয়ন সমন্বয়কারী (ছনহরা) আলমগীর খালেদ জানান, যারা চাল পাবেন তাদের নামের তালিকা সমন্বয় করে দেওয়া হয়েছে। ইউপি সদস্যরা স্বজনপ্রীতি ও অনিয়ম করে তালিকা তৈরি করেছেন। যার কারণে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে বিতরণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। আগামী কাল রবিবার তালিকা যাচাই বাছাই করে চাল বিতরণ করা হবে বলে জনান তিনি।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর

ট্যাগ :