বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯

ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে উড়ন্ত বলে চড়ুই পাখির মৃত্যু!

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-২০ ১৮:২৬:৩৯ || আপডেট: ২০১৯-০৭-২০ ১৮:২৬:৪৫

বাংলাধারা প্রতিবেদন »

২০৫ বছর আগে ক্রিকেটার টমাস লর্ডস প্রতিষ্ঠা করেছিলেন লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ড। যেটি এখন ক্রিকেটের তীর্থভূমি৷ ক্রিকেট খেলাটির আইনপ্রণেতা সংস্থা (এমসিসি) আর মিডেল সিক্স ক্রিকেটের ঠিকনা টমাস লর্ডস। আর এই লর্ডসের বড় আকর্ষণ এমসিসি ক্রিকেট জাদুঘর। এই জাদুঘরটি লর্ডসে আছে ১৯৫৩ সাল থেকে। প্রতিনিয়তই ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ ইতিহাস এখানেই হালনাগাদ করা হয়। ১৯৩৬ সালে ১৩ জুলাই একটি ম্যাচে এমসিসির ব্যাটসম্যান টিএম পিয়ারসের একটি বল উড়ন্ত চড়ুই পাখির গায়ে লাগে। সাথে সাথে চড়ুই পাখিটি মারা যায়। সেই চরই পাখি ও বলটি সংরক্ষণ করে রেখেছে এমসিসি জাদুঘর। ওই জাদুঘরের প্রধান আকর্ষণীয় জিনিস এটি।

দোতলা জাদুঘরে ঢোকার মুখেই হাতের বা পাশে কিংবদন্তি আম্পায়ারদের ভাস্কর্য রয়েছে। আর নিচ তলায় এক পাশে কীর্তিমান ব্যাটসম্যানদের স্মারক আর অন্য পাশে বোলারদের। ক্রিকেটের তুখোড় অধিনায়কদের নিয়েও আছে আলাদা জায়গা। ২০১০ সালে লর্ডসে তামিম ইকবালের সেঞ্চুরি করা ব্যাটটি আছে অনেক যত্ন সহকারে। আর ১৯৯৯ সালে নিজেদের অভিষেক বিশ্বকাপে টাইগাররা একটি ম্যাচও লর্ডসে খেলেনি। তবে এই জাদুঘরে সেই সময়ের একটি জার্সি, একটি হেলমেট ও একটি ব্যাট সুরক্ষিত আছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) কি এত যত্ন করে নিজেদের প্রথম বিশ্বকাপের জার্সি রেখেছে? এই জাদুঘরে দোতালায় আছে ক্রিকেটের শুরু থেকে বর্তমান সময়ের ট্রফি ও গুরুত্বপূর্ণ স্বারক। তবে ট্রফি সেকশনের মূল আকর্ষণ অ্যাশেজের ছোট্ট ট্রফিটি৷ আরো আছে ১৯৮৩ বিশ্বকাপের ট্রফিও।

বাংলাধারা/এফএস/এমআর/টিএম

ট্যাগ :