বাংলাদেশ, সোমবার, ২০ জানুয়ারী ২০২০

মাটিরাঙ্গায় অবৈধভাবে বালু উওোলনের দায়ে জরিমানা

প্রকাশ: ২০২০-০১-১৬ ১৭:৩৪:০৭ || আপডেট: ২০২০-০১-১৬ ১৭:৩৪:৪৭

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি »

খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার বেলছড়ি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের শান্তিপুর ব্রিজের নিচে নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনের ফলে এতে হুমকীর মুখে পড়ছে মাটিরাঙ্গা উওর অঞ্চলের গুরুত্বপূর্ন সেতু সরকারী রাস্তা ও ফসলী জমি। মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার দায়ে একজনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৬জানুয়ারি) দুপুরের দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে বেলছড়ি ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মৃত হাবিল মিয়ার ছেলে মো:আবদুল্লাহ নামের একজনকে ৫০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ওমাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ। এসময় মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আনিছুজ্জামান ডালিম, গোমতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফারুক হোসেন লিটন, গোমতি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মনির হোসেন ও বেলছড়ির ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. আবুল কালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ গোপন সংবাদের ভিওিতে বেলছড়ি ইউনিয়নের শান্তিপুর ব্রিজের নিচ থেকে ড্রেজার বসিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে অবৈধ ভাবে বালু উওোলনকারি কোন কাগজ দেখাতে না পারায় বালু উত্তোলনের ড্রেজার মেশিন নষ্ট করে, এক জনকে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্হাপনা (২০১০)এর ১৫(১ ধারা) মতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়, এবং ভবিষ্যতে বালু উত্তোলনের নিষেধ করা হয়।

তিনি আরো বলেন, বালু মহল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ধারা ৫ এর ১ উপধারা অনুযায়ী পাম্প, ড্রেজিং বা অন্য কোনো মাধ্যমে ভূ-গর্ভস্থ বালু বা মাটি উত্তোলন করা যাবে না। ধারা-৪ এর (খ) অনুযায়ী সেতু, কালভার্ট, ড্যাম, ব্যারেজ, বাঁধ, সড়ক, মহাসড়ক, বন, রেললাইন ও অনান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনা হলে অথবা আবাসিক এলাকা হতে সর্বনিম্ন ১ কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারী যতই শক্তিশালী হোক, তাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :