বাংলাদেশ, বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ইজতেমায় স্মরণকালের বৃহত্তম জুমা

প্রকাশ: ২০২০-০১-১৭ ১৬:০০:৪৩ || আপডেট: ২০২০-০১-১৭ ১৬:০০:৪৯

বাংলাধারা ডেস্ক »  

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুক্রবার(১৭ জানুয়ারি) থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে। প্রায় ১৬০ একর জমিতে তৈরি করা বিশাল ছাউনি। সকাল থেকেই তুরাগ তীরে অগণিত মুসল্লিদের ভীড়। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে জনস্রোত বাড়ছিল। জুমার নামাজ শুরুর আগেই সমগ্র ইজতেমা ময়দান ও আশপাশের রাস্তাঘাট পূর্ণ হয়ে যায়। গাজীপুর এবং রাজধানী ঢাকার উত্তরা ছাড়াও টঙ্গী এর আশপাশের এলাকার কয়েক লাখ ধর্মপ্রাণ মানুষ ইজতেমায় বৃহত্তর জুমার নামাজে অংশ নিতে পায়ে হেঁটে ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেন।

জুমার নামাজের ইমামতি করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোশারফ।

এর আগে ফজরের নামাজের পর বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের জিকির আসকার ইবাদত বন্দেগিতে মশগুল  টঙ্গী এলাকা।

টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিয়ে বার্ধক্যজনিত রোগে বৃহস্পতিবার রাতে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। তার নাম কাজী আলাউদ্দিন (৬৬)। তিনি সুনামগঞ্জের লক্ষ্মীপুর চাঁনপুর এলাকার হযরত আলীর ছেলে। এ নিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দফায় যোগ দিতে গিয়ে মোট তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

বিশ্ব ইজতেমা ময়দানের পুলিশ কন্ট্রোল রুমে দায়িত্বরত গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. মনজুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে আলাউদ্দিন নিজ খিত্তায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে স্থানীয় শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :