বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ৭ এপ্রিল ২০২০

বিনা জামানতে ২ লাখ বেকারকে ঋণ দেবে কর্মসংস্থান ব্যাংক

প্রকাশ: ২০২০-০২-০৬ ১০:৪৪:২৮ || আপডেট: ২০২০-০২-০৬ ১০:৪৫:০৮

বাংলাধারা ডেস্ক »  

কোন ধরণের জামানত ছাড়াই ২ লাখ প্রশিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ দেব কর্মসংস্থান ব্যাংক। এজন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে বিশেষায়িত ব্যাংকটি মূলধনের সরকারি অংশের ১৩৫ কোটি টাকা চেয়েছে। চলমান মুজিববর্ষ উপলক্ষে তারা এ ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানিযেছে, দেশে বর্তমানে বেকারের সংখ্যা ২৬ লাখের অধিক। এর মধ্যে ২ লাখ প্রশিক্ষিত তরুণ-তরুণীর মধ্যে ঋণ বিতরণের পাশাপাশি ব্যাংকিং কার্যক্রমে গতি আনার জন্য সম্প্রতি মূলধনের সরকারি অংশের অপরিশোধিত ১৩৫ কোটি টাকা চেয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে চিঠি দেয় কর্মসংস্থান ব্যাংক।

অর্থ সচিবের কাছে এ টাকা ছাড়ের বিষয়ে অগ্রগতি জানতে চেয়ে গত ২৭ জানুয়ারি তৃতীয়বারের মতো চিঠি দেয় আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ। এর আগে একই বিষয়ে আরও দুবার পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বলে অর্থ বিভাগে চিঠি দেয় সংশ্লিষ্ট বিভাগ।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে অর্থ সচিবের কাছে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়, কর্মসংস্থান ব্যাংক আইনের ৭ (১) ধারা মোতাবেক পরিশোধিত মূলধনের ৭৫ শতাংশ অর্থাৎ ৬০০ কোটি টাকার মধ্যে সরকার কর্তৃক অপরিশোধিত ১৩৫ কোটি টাকা ছাড়করণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো। এর আগেও দুবার বিষয়টির অগ্রগতি জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়। কিন্তু এ বিষয়ে অর্থ বিভাগ কর্তৃক গৃহীত কার্যক্রম এখনও জানা যায়নি।

এতে আরও বলা হয়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারে তরুণদের মধ্যে উদ্যোক্তা হওয়ার প্রবণতা এবং আত্মকর্মসংস্থান বৃদ্ধি করতে কর্মসংস্থান ব্যাংকের মাধ্যমে বিনা জামানতে ও সহজ শর্তে ঋণ সুবিধা আরও বাড়ানো হবে। এ পরিপ্রেক্ষিতে কর্মসংস্থান ব্যাংকের মাধ্যমে বিনা জামানতে ও সহজ শর্তে ঋণ সুবিধা জনপ্রতি ২ লাখ টাকা হতে বাড়িয়ে ৫ লাখ টাকায় উন্নীত করা হয়েছে।

এছাড়া কর্মসংস্থান ব্যাংকে ঋণের ব্যাপক চাহিদা সৃষ্টির পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৯-২০ অর্থবছরে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা এক হাজার ৪০০ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। বর্ধিত এ ঋণ বিতরণে অতিরিক্ত তহবিল প্রয়োজন।

এই চিঠিতে আরও বলা হয়, মুজিববর্ষ উপলক্ষে আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্দেশ্যে কর্মসংস্থান ব্যাংক ২ লাখ প্রশিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীকে বঙ্গবন্ধু যুব ঋণ বিতরণ কর্মসূচির আওতায় আনা হবে। এ অবস্থায় কর্মসংস্থান ব্যাংকের পরিশোধিত মূলধনের ৭৫ শতাংশ অর্থাৎ ৬০০ কোটি টাকার মধ্যে সরকার কর্তৃক অপরিশোধিত ১৩৫ কোটি টাকা ছাড়করণের অগ্রগতি জানাতে পুনরায় অনুরোধ করা হলো।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মগ্রহণের শত বছর পূর্ণ হবে। সরকার ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করবে। এজন্য ব্যাপক কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :