বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০

বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

প্রকাশ: ২০২০-০২-০৯ ২৩:২০:১২ || আপডেট: ২০২০-০২-০৯ ২৩:২০:২৮

বাংলাধারা প্রতিবেদন »  

আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নিল বাংলাদেশের যুবারা। সাউথ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমের সেনওয়েস পার্কে টস জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠায় বাংলাদেশ। আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্তটাকে  সঠিকই প্রমাণ করেছেন বাংলাদেশের বোলাররা। শক্তিশালী ভারতীয় ব্যাটিং অর্ডারকে বেশিদূর যেতে দেননি তারা, রেখেছেন নাগালের মধ্যে।ব্যাট করতে নেমে ৪৭.২ ওভারে ১৭৭ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

শুরু থেকেই ভারতের রানের চাকা চেপে ধরে টাইগাররা। মাত্র দুই রান করা দিভিয়ানস সাক্সেনাকে ফিরিয়ে শুরুতেই ব্রেক থ্রু আনেন অভিষেক দাস। এরপর ৯৪ রানের জুটিতে ভারতের ইনিংসের ভিত শক্ত করেন ইয়াশাসভি জেসওয়াল ও তিলক ভার্মা। ৩৮ রান করা তিলককে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন তানজিম হাসান সাকিব। প্রিয়ম গর্গও টেকেননি বেশিক্ষণ।

তবে অন্যপ্রান্তে স্বাচ্ছন্দে খেলতে থাকা ইয়াশাসভি জ্যাসওয়াল তুলে নেন হাফ সেঞ্চুরি। ব্যক্তিগত ৮৮ রানে জ্যাসওয়ালকে ফেরান শরিফুল ইসলাম। ঠিক পরের বলেই সিদ্ধেশ বীরকে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিক সম্ভাবনা জাগান শরিফুল। তিনি হ্যাটট্রিক না পেলেও মাত্র ২১ রানে শেষ ৭ উইকেট হারায় ভারত। অলআউট হয় ১৭৭ রানে।অভিষেক দাস তিনটি এবং শরিফুল ও সাকিবের শিকার দুটি করে উইকেট।

জবাবে ১৭৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেট হারিয়ে  স্বপ্নের ট্রফি জিতে নেয় যুবা টাইগাররা। সেইসঙ্গে বিশ্বকাপ জয়ের ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ। আর সাউথ আফ্রিকার বৈরি কন্ডিশনে প্রত্যাশার চেয়েও ভালো খেলে এই প্রথম যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলল বাংলাদেশের যুবারা।

ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরুর পর হঠাৎ টালমাটাল হয়ে পড়ে বাংলাদেশ।৫০ রানের ওপেনিং জুটির হঠাৎই টানা উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। ৫০ রানে পড়ে প্রথম উইকেট, ফেরেন ওপেনার তানজীদ। এরপর ১৫ রানের মধ্যে ফিরে যান জয়, হৃদয় ও শাহাদাত।

বাংলাদেশ বিনা উইকেটে ৫০ থেকে পরিণত হয় চার উইকেটে ৬৫তে। এরপর  আউট হন শামীম, অভিষেক দাশ ও ইমন। দলকে জয়ের পথে নিয়ে যান অধিনায়ক আকবর ও ওপেনার পারভেজ ইমন।

৪৭ রান করে পারভেজ ফিরলে আবারও চাপে পড়ে টাইগাররা। এরপর রাকিবুলকে নিয়ে আবারও ধীরে ধীরে জয়ের দিকে এগিয়ে যায় যুবারা। ১৫ রান দরকার হলে হঠাৎ বৃষ্টি শুরু হলে খেলা বন্ধ হয় । বৃষ্টি থামলে ডিএসএল মেথডে বাংলাদেশের ৭ রান দরকার হয় ৬ ওভারে।সুশান্ত বল করতে এসে ৬ বলে ৬ রান দিলে বাংলাদেশের যুবাদের প্রয়োজন হয় মাত্র ১ রানের । আনকোলারের প্রথম বলে এক রান নিয়ে রকিবুল জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশের।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :