বাংলাদেশ, রোববার, ৫ এপ্রিল ২০২০

নগরীতে সবজিসহ বেড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম

প্রকাশ: ২০২০-০২-২৮ ১১:৫২:৫২ || আপডেট: ২০২০-০২-২৮ ১১:৫২:৫৯

বাংলাধারা প্রতিবেদন »  

চলছে ফাল্গুন মাস, কমেছে শীতের দাপট। আবহাওয়া জানান দিচ্ছে গরমের আভাস। বাজারে কমতে শুরু করেছে শীতকালীন সবজির সরবরাহ।

শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, শুধু সবজিই নয়, বেড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় অন্যান্য পণ্যের দামও।

নগরীর কর্ণফুলী বাজারে দেখা যায়, আলু ২৫ টাকা, বেগুন ৪০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, ঢেঁড়স ৭০ টাকা, ঝিঙ্গা ৬০ টাকা, শিম ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, বরবটি ৬৫ টাকা, করলা ৮০ টাকা, বাঁধাকপি ২৫ টাকা, ফুলকপি  ৩০ টাকা, লাউ ২০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ২৫ টাকা, মূলা ১৫ টাকা,  শসা ২০ টাকা, কাঁচামরিচ ৫০ টাকা, ছোট কচু ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা জানায়, বাজারে শীতকালীন সবজির সরবরাহ কম থাকায় দাম বেড়ে গেছে।

এদিকে, বাজারে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকা, মিশরের পেঁয়াজ ৮০ টাকা, ভারত মিয়ানমারের পেঁয়াজ ১০০ টাকা। রসুন ১৭০ টাকা, চিনি ৭০ টাকা, সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১২০ টাকা।

মাছের বাজারে গলদা চিংড়ি ৬০০ টাকা, ছোট চিংড়ি ৪০০-৪৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১৫০ টাকা, রুই  ২৩০ টাকা, লইট্টা ১৩০ টাকা, কাতাল ২৫০ টাকা, ছোট রূপচাঁদা  ৫৫০ টাকা, লাল কোরাল ৬০০ টাকা, সুরমা মাছ ২৫০ টাকা, পাঙ্গাস ১৪০ টাকা, ছোট ইলিশ ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া ব্রয়লার মুরগি প্রতি কেজি ১২০ টাকা, পাকিস্তানি ২২০ টাকা ও দেশি মুরগি ৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে ৬৫০ টাকা, খাসির মাংস প্রতিকেজি ৭০০-৭৫০ টাকায়।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :