বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০

পটিয়ায় করোনা সচেতনতায় কাউন্সিলরের ব্যতিক্রম প্রচারাভিযান

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৩ ০৯:০৮:২৭ || আপডেট: ২০২০-০৫-২৩ ০৯:০৮:২৯

কাউছার আলম, পটিয়া »

পটিয়া পৌরসভার চার নং ওয়াডের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে চলছেন এক জনপ্রতিনিধি। এমনিতেই পটিয়ার সাধারন মানুষ করোনা ভাইরাসের ভয়ে কিংকর্তব্যবিমূঢ় হওয়ায় স্বাভাবিক জীবনযাত্রায় নেমে এসেছে বিপর্যয়। আর এই দুঃসময়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের সচেতন করতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের যুদ্ধে নেমেছে পটিয়া পৌরসভার দরদী বন্ধু হিসাবে পরিচিত কাউন্সিলর গোফরান রানা। আর প্রতিদিনেই নিজের জীবনের সুরক্ষার কথা ভুলে প্রিয় ৪নং ওয়ার্ডবাসীর সুরক্ষার কথা চিন্তা করে ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি কখনও মটর সাইকেল আবার কখনও পায়ে হেটে ছুটে চলছেন প্রতিটি গ্রাম, পাড়া-মহল্লায়। তার প্রচারণা ও লিফলেট, মাস্ক, হাতে গ্লাবস, ডেটল সাবান বিতরণ করছেন তার সহযোগীদের নিয়ে। এর ফলে অসহায় মানুষ এতে সাহস পচ্ছে এবং তার কথা অনেকেই মেনে চলছেন।

সেই সাথে সবাইকে করোনা ভাইরাস নিয়ে অহেতুক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুল তথ্য পরিবেশন না করা, নির্দিষ্ট দুরত্ব বজায় রেখে চলা, সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সমাবেশ, গণসংযোগ, জমায়েত, বৃহৎ পরিসরে ধর্মীয় ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কমিউনিটি সেন্টার, স্থানীয় হাটবাজার, বাসস্ট্যান্ড, হোটেল-রেস্তোরা, ঘোরাফেরা বন্ধ রাখার পাশা পাশি গুজব না রটানো, আতংক সৃষ্টি না করা, বিনা প্রয়োজনে বসতবাড়ি হতে বের না হওয়া, হাট বাজারে ঔষধ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দোকানপাঠ ব্যাতীত অন্যান্য দোকানপাঠ বন্ধ রাখা, ঘন ঘন সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাবস ব্যবহার করা, করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগাযোগ করা, গণজমায়েত না হওয়া, দ্রব্যমূল্যের দাম না বাড়তে ব্যবসায়ীদের ও সরকারের জারিকৃত নির্দেশনা মেনে চলার আহবান জানান।

এছাড়াও তিনি চট্টগ্রামের বাইরে যারা ব্যাবসা বানিজ্য ও কর্মস্থল হতে ইতোমধ্যে এলাকায় ঈদ করতে এসেছেন তাদেরকে অন্তত ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার জন্য অনুরোধ করে আজ শুক্রবার জুমার নামাজের পর তিনি পাড়ায় মহল্লা গিয়ে হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে অনুরোধ জানান।

এছাড়াও পরিবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত হাট বাজারে ও বিভিন্ন এনজিওর কিস্তি টাকা উত্তোলন বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বলে অবগত করেন তিনি। জনসচেতনতামূলক প্রচারাভিযানের কাউন্সিলর গোফরান রানা জানান, সবাইকে সচেতন হতে হবে। সবাইকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে এবং নিয়ম অনুযায়ী চলতে পারলেই আমরা রক্ষা পেতে পারি। তাই আমি আমার ওয়াডের সকল স্থরের জনসাধারনেসর কাছে যাচ্ছি এবং তাদের কে সর্তক করছি।

পটিয়ায় যে হারে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের হার বাড়ছে তা নিয়েও তিনি উদ্ভেগ প্রকাশ করে বলেন, এটি একটি অদৃশ্য শক্তি যা চোখে আমরা কেউ দেখছি না। আর যারা মৃত্যুবরণ করছেন তাদেরকে কিভাবে দাপন কাপন করা হচ্ছে তা আমরা দেখছি। তাই এখনই যদি আমরা সচেতন না হই তাহলে কোথায় গিয়ে ঠেকবে এ পরিস্থিতি তা বলা মুশকিল। তাই আমার ওয়াডের বাসিন্দাদের এ মহামারী হতে বাঁচাতে আমার এ প্রচারাভিযান।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম/এএ

ট্যাগ :