বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০

সৌদির হজ্ব বাতিল; নতুন উদ্যোগ বাংলাদেশের

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৫ ১২:২৯:০১ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৫ ১২:২৯:২৯

বাংলাধারা ডেস্ক »

চলতি বছরে পবিত্র হজ পালনে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে যারা নিবন্ধন, প্রাক-নিবন্ধন করেছিলেন তাদের বৈধতা বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। তাদের নিবন্ধন ২০২১ সালের জন্য বৈধ থাকবে বলে জানা গেছে। নিবন্ধনকারী হজযাত্রীদের জমাকৃত টাকা ২০২১ সালের প্যাকেজ মূল্যের সাথে সমন্বয় করা হবে। আর যারা টাকা ফেরত নিতে চান তাদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে।

বুধবার (২৪ জুন) আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পবিত্র হজ বাতিলের প্রেক্ষিতে  বাংলাদেশের করণীয় নির্ধারণ করতে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় অনলাইন সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানান মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

তারা আরো জানান, নিবন্ধন বাতিলকারী হজযাত্রীদের প্রাক-নিবন্ধন ও নিবন্ধনের পুরো টাকা ফেরত দেওয়া হবে। সরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের ক্ষেত্রে সোনালী ব্যাংক থেকে প্রাক-নিবন্ধন ও নিবন্ধনের অর্থ সরাসরি হজযাত্রীর একাউন্টে স্থানান্তর করা হবে। কোন হজযাত্রীর ব্যাংক হিসাব না থাকলে তার ইচ্ছানুযায়ী চেক/পে-অর্ডারের মাধ্যমে পরিশোধ করা হবে।

বেসরকারি ব্যবস্থাপনার হজযাত্রীদের ক্ষেত্রে নিবন্ধনের জন্য জমাকৃত অর্থ হজযাত্রীর ইচ্ছানুযায়ী সরাসরি ব্যাংক থেকে অথবা এজেন্সির মাধ্যমে গ্রহণ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রাক-নিবন্ধনের জন্য জমাকৃত অর্থ পূর্বের ন্যায় পরিচালক, হজ অফিস, ঢাকা থেকে হজযাত্রীর ইচ্ছানুযায়ী সরাসরি তার ব্যাংক হিসাবে চেক এর মাধ্যমে অথবা এজেন্সির মাধ্যমে ফেরত দেওয়া হবে।

সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধিত কোন হজযাত্রী নিবন্ধন বাতিল করে টাকা ফেরত চাইলে তা অনলাইনে অথবা হজযাত্রীর ইচ্ছানুযায়ী ফেরত প্রদান করার জন্য আগামী ১২ জুলাইয়ের মধ্যে  নিবন্ধন প্রক্রিয়ার অনুরূপ একটি নিবন্ধন বাতিল প্রক্রিয়া প্রস্তুত করে ই-হজ সিস্টেমে সংযুক্ত করা হবে। নিবন্ধন বাতিলে ইচ্ছুক হজযাত্রীগণকে স্ব স্ব নিবন্ধন কেন্দ্র থেকে নিবন্ধন বাতিলের আবেদন করতে হবে। ১৩ জুলাই থেকে নিবন্ধনে বাতিলে ইচ্ছুক হজযাত্রীগণ আবেদন করতে পারবেন।

এ সংক্রান্ত সফটওয়ার প্রস্তুত ও পরীক্ষার জন্য উপস্থিত সকলের সম্মতিতে নিয়োজিত আইটি প্রতিষ্ঠানকে এ সময় প্রদান করা হয়।

এ বছর বাংলাদেশ থেকে কোন হজযাত্রী প্রেরণ করা হবে না বিধায় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ কর্তৃক কোন ভ্যাকসিন ক্রয় করা হবে না।

সভায় ধর্ম সচিব মোঃ নুরুল ইসলাম  জানান, রাজকীয় সৌদি সরকারের হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয়ের ভাইস মিনিস্টিার টেলিফোনে এ বছরের হজের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। এ সময় করোনাভাইরাস পরিস্থিতির বিষয়ে বাংলাদেশ, সৌদি আরব এবং বিশ্বের অন্যান্য দেশের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়।

তিনি জানান, সার্বিক বিবেচনায় এ বছর বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে সৌদি আরবে হজযাত্রী প্রেরণ করা যাবে না। এ জন্য তিনি বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের প্রতি সমবেদনা ও আন্তরিক দু:খ প্রকাশ করেছেন।

সভার শুরুতে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সদ্য প্রয়াত প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব এডভোকেট শেখ মোঃ আব্দুল্লাহ এর আকস্মিক মৃত্যুতে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয় ও তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করা হয়।

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের ভয়াবহ সংক্রমণ পরিস্থিতিতে সৌদি আরব সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, সৌদি আরবের বাহির থেকে কোন দেশের হজযাত্রী এ বছরের হজ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করবে না।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম/এএ

ট্যাগ :