বাংলাদেশ, বুধবার, ৮ জুলাই ২০২০

ডা. ফয়সলকে গ্রেপ্তারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

প্রকাশ: ২০২০-০৬-২৬ ১৯:৪৭:৪৬ || আপডেট: ২০২০-০৬-২৬ ১৯:৪৭:৪৮

বাংলাধারা প্রতিবেদন »  

চট্টগ্রামে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত ও চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনিকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকিদাতা, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরীর গ্রেপ্তারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদী মানববন্ধন করেছে পাঁচলাইশ থানা আওয়ামী যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা

শুক্রবার (২৬ জুন) বিকাল ৩টায় নগরীর ৭ং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

পাঁচলাইশ থানা যুবলীগ নেতা মো. খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে ও এমইএস কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মো. আরিফ হোসেনের সঞ্চালনায় উক্ত মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুর রহমান, যুবলীগ নেতা মো. মেহেদী, মো. হিরু, মো. নাসির উদ্দিন দিপু, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মো. মানিক, এমইস কলেজ ছাত্রনেতা মো. নাজিম উদ্দিন, মো. নোমান রাকিন, মো. রাকিব, ইসলামিয়া কলেজ ছাত্রলীগের উপ-সম্পাদক সৌমিত্র দে প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, করোনাকালে চট্টগ্রামের বেহাল স্বাস্থদশা নিয়ে আন্দোলন করে আসছেন নুরুল আজিম রনি। তাই আন্দোলন নসাৎ করতে নুরুল আজিম রনির লাশ ফেলে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন পেশাজীবী চিকিৎসক নেতা ফয়সাল ইকবাল। একজন পেশাদার খুনী ছাড়া এভাবে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দেয়া অন্য কারো পক্ষে সম্ভব নয়। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং অবিলম্বে ফয়সাল ইকবালের গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।

বক্তারা বিক্ষুব্ধ কন্ঠে বলেন, চট্টগ্রামের স্বাস্থ্য খাতকে জিম্মি করে ফয়সল ইকবাল তার স্বভাবসুলভ মাস্তানি প্রদর্শন করেছে। ছাত্র অবস্থাতেও তিনি একাধিক হত্যা মামলার আসামী ছিলেন। এছাড়াও, সরকারের নির্দেশ অমান্য করে বেসরকারি হাসপাতালগুলো বন্ধ রেখে এই করোনাকালে চট্টগ্রামবাসীকে অবর্ণনীয় কষ্ট দিয়েছে। আমরা তার এই ঘৃণ্য কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম বিধায় আজ সে রনিকে হত্যার হুমকি দিল। কাল আমাকে দিবে। আমরা আইনশৃংখলা বাহিনীকে অনুরোধ জানাব, চট্টগ্রামের স্বাস্থ্যখাত ধ্বংসের এই কুশীলবকে অতি দ্রুত গ্রেফতার করুন।

এর আগে গত (২২জুন) সোমবার নুরুল আজিম রনির লাশ ফেলার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ডা. ফয়সলের ইকবাল চৌধুরীর বিরুদ্ধে।

নগরীর পিসি রোডের হালিশহর ওয়াপদা মোড় এলাকায় ‘ প্রিন্স অব কমিউনিটি’ সেন্টারে তৈরি হওয়া করোনা আইসোলেশন সেন্টার চট্টগ্রাম এর প্রধান উদ্যোক্তা মো. সাজ্জাদ হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলার সময় এই হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ উঠে।

এসময় ছাত্রনেতা আরাফাত হোসেন, হৃদয়, ইউসুফ, ইশতিয়াক শুভ, মামুনুর রশিদসহ শতাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :