বাংলাদেশ, রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

রামুতে জমির বিরোধ, প্রবাসীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশ: ২০২০-০১-১৫ ১৮:১০:১৩ || আপডেট: ২০২০-০১-১৫ ১৮:১০:১৯

কক্সবাজার প্রতিনিধি »

কক্সবাজারের রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়িতে এক ব্যক্তিকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এ হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে দাবি করেছে নিহতের স্বজনরা।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পর রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি জিনের ঘোনা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মাহমুদুল হক (৪৫) দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের পানেরছড়া এলাকার গোলাম হোসেনের ছেলে ও সৌদি প্রবাসী।

মাহমুদুল হক ২ মেয়ের জনক। ৪ মাস পূর্বে তিনি দেশে আসেন এবং এক সপ্তাহ পর আবারো সৌদি আরব ফেরার কথা ছিলো তার।  

নিহতের ভাই ছৈয়দুল হক জানান, জিনেরঘোনা এলাকায় ক্রয়কৃত জমি দেখাশোনা করে বাড়ি ফেরার পথে এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু খুইল্যা মিয়া, সুলতান আহমদ, মোস্তফার নেতৃত্বে ১০-১৫ জন অস্ত্রধারি পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকাণ্ড করে। হামলাকারিরা দা-কিরিচ দিয়ে কুপিয়ে মাহমুদুল হকের পুরো শরীর ছিন্ন-বিচ্ছন্ন করে দেয়। এতে ঘটনাস্থলে প্রাণ হারান তিনি। 

ময়নাতদন্ত শেষে বুধবার আছরের নামাজের পর তাকে দাফন করা হবে বলে পরিবার সূত্র জানিয়েছে। 

সূত্রমতে, মাহমুদুল হকের ক্রয়কৃত জমিটির মালিকের সাথে হামলাকারি খুইল্যা মিয়াদের বিরোধ ছিল। মাঝখানে জমিটি মাহমুদুল হক ক্রয় করায় তার উপর ক্ষুদ্ধ হন খুইল্যা মিয়া গং। তারা শুরুতে মাহমুদুলকে হুমকি দিয়ে দেখেছিলেন। কিন্তু হুমকিতে বিচলিত না হওয়ায় মধ্যযুগীয় বর্বরতায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। ধারালো কিরিচের কোপে তার হাত-পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েছে। ক্ষতবিক্ষত হয়েছে অন্য কোপানো অংশ।                   

রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল খায়ের জানিয়েছেন, হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে নেয়া হয়েছে।          

এদিকে, বর্বরোচিত এ ঘটনায় এলাকায় চরম ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম/এএ

ট্যাগ :

close