বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০

মাটিরাঙ্গায় ভূয়া ডাক্তারের এক বছরের জেল

প্রকাশ: ২০২০-০১-১৮ ১৪:০৮:৩০ || আপডেট: ২০২০-০১-১৮ ১৪:০৮:৩৬

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি »

খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সামনে জমিলা ফার্মেসী নামক এক ফার্মেসীতে ভূয়া ডিগ্রীধারী মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মো: সিফাত হাসান শাহীন নামে একজন কে ভ্রাম্যমাণ্য আদালত পরিচালনা করে আটক করা হয়।

শনিবার (১৮ জানুযারি) দুপুরের দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশের নেতৃত্বে মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সামনে অভিযান পরিচালনা করেন।

ভুয়া মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কোনো বৈধ সনদ, এম,বি,বি এস (ঢাকা) ২৮তম বি সি এস, এফ সি পি এস (মেডিসিন) সি,সি,ডি (বারডেম) কোন বৈধ কাগজ না থাকায় মো: সিফাত হাসান শাহীনকে এক বছরের জেল দেওয়া হয়েছে।

আটক সিফাত হাসান শাহীন ঢাকার কদমতলী ১২৩৬ ধনিয়া গ্রামের মো: জজ মিয়ার ছেলে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ জানান, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসার কোনো বৈধ সনদ দেখাতে পারে নি। সে ভূয়া ডাক্তার নিজে স্বীকার করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে তাই তাকে বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিল আইন (২০১০)২৯ ধারায় ভূয়া পদবী নাম ব্যবহারের কারনে তাকে একবছরে জেল প্রদান করা হয়।

অভিযানে সহযোগিতা করেন বি,জি,সি ট্রাষ্ট মেডিকেল কলেজের সহযোগি অধ্যাপক ডা:ময়নাল হোসেন, মাটিরাঙ্গা স্বাস্হ্য কমপ্রেক্সের ডা:মো:ইমরান হোসেন, ডা:নাহিদা আক্তার, মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা.মো: ওমর ফারুক, ডা:মো:শরিফুল ইসলাম মাটিরাঙ্গা মডেল থানার এস আই খুরশিদ আলম।

বাংলাধারা/এফএস/টিএম

ট্যাগ :

close