বাংলাদেশ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পোশাক শিল্পের শ্রমিক কর্মচারীদের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনার টিকা দাবী

প্রকাশ:২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বাংলাধারা প্রতিবেদন  »

করোনার ২য় ঢেউ-এর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সতর্কতামূলক  নির্দেশনার আলোকে করণীয় নির্ধারণের জন্য বিজিএমইএ’র আঞ্চলিক কার্যালয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার (১১ নভেম্বর) বিকালে  বিজিএমইএ’র প্রথম সহ-সভাপতি জনাব মোহাম্মদ আবদুস সালাম এর সভাপতিত্বে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় আবদুস সালাম করোনার প্রথম ঢেউ মোকাবেলায় ঋণ প্রনোদনা সহ সরকারের গৃহীত বিবিধ পদক্ষেপের ভূঁয়াষী প্রশংসা করে বলেন বলেন, কোভিড-১৯ এর ২য় ঢেউ মোকাবেলায় আমাদেরকে প্রথমবারের মত সার্বিক প্রস্তুতি নিতে হবে। সাধারণ ছুটির মধ্যেও কারখানা খুলে দেওয়ার মত চ্যালেঞ্জিং সিদ্ধান্ত এবং শ্রমিকদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে পারায় আমাদের এ শিল্প কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছিল।

তিনি বলেন, বিজিএমইএ কোভিড-১৯ (করোনা) ফিল্ড হাসপাতাল ইতিমধ্যে করোনা চিকিৎসায় যথেষ্ট সহায়ক ভূমিকা রেখেছে, এটিকে আরো বেগবান ও চলমান রেখে করোনা চিকিৎসা সেবা আরো প্রসারের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- বিজিএমইএ’র সহ-সভাপতি জনাব এ.এম চৌধুরী সেলিম, বিজিএমএ’র পরিচালক সর্বজনাব অঞ্জন শেখর দাশ, মোহাম্মদ আতিক, খন্দকার বেলায়েত হোসেন, এনামূল আজিজ চৌধুরী, প্রাক্তন প্রথম সহ-সভাপতি সর্বজনাব নাসিরউদ্দিন চৌধুরী, মঈনুদ্দিন আহমেদ (মিন্টু), প্রাক্তন সহ-সভাপতি জনাব মোহাম্মদ ফেরদৌস, প্রাক্তন পরিচালক জনাব সাইফ উল্ল্যাহ মনসুর, টপস্টার এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব আবছার হোসেন প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপে সরকারী সহযোগিতায় বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রথম ধাক্কা আমাদের তৈরী পোশাক শিল্প কোন ভাবে সামাল দিলেও  এই মহামারীর ২য় ঢেউ ইতিমধ্যে এ’শিল্পে আঘাত দিতে শুরু করেছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রায় অর্ধেক দেশে লকডাউনের মত অবস্থা বিরাজ করছে। তাই আমাদের এখনই প্রস্তুত হতে হবে।

পরে বক্তাদের বক্তব্য থেকে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, যেহেতু এ শিল্প চলমান থাকাতে  করোনাকালেও আমাদের দেশের অর্থনীতি স্থিতিশীল ছিল। তাই এ শিল্পকে ২য় ঢেউ কালীন সময়েও টিকিয়ে রাখতে হলে অন্যান্য সহায়তার পাশাপাশি পোশাক শিল্প যোদ্ধা হিসাবে এ শিল্পে কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের জন্য করোনার টিকা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সরবরাহ করার জন্য সরকারের অনুরোধ জানান।

এ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ’র সহ-সভাপতি জনাব এ.এম. চৌধুরী সেলিম, পরিচালকবৃন্দ সর্বজনাব অঞ্জন শেখর দাশ, মোহাম্মদ আতিক, খন্দকার বেলায়েত হোসেন, এনামূল আজিজ চৌধুরী, প্রাক্তন প্রথম সহ-সভাপতি সর্বজনাব নাসিরউদ্দিন চৌধুরী, মঈনুদ্দিন আহমেদ (মিন্টু), প্রাক্তন সহ-সভাপতি জনাব মোহাম্মদ ফেরদৌস, প্রাক্তন পরিচালকবৃন্দ সর্বজনাব- এমদাদুল হক চৌধুরী, সাইফ উল্ল্যাহ মনসুর সহ কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।

বাংলাধারা/এফএস/এআর

ট্যাগ :

close