বাংলাদেশ, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চসিক নির্বাচনে দু’পক্ষে সংঘর্ষ, বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থীসহ আটক ২৬

প্রকাশ:২৬শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাংলাধারা প্রতিবেদন  »

চট্টগ্রাম নগরীর পাঠানটুলী এলাকায় মঙ্গলবার রাতে চট্টগ্রাম সিটি কপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে গোলাগুলিতে আজগর আলী বাবুল সর্দার নিহত হওয়ার ঘটনায় ২৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটকদের মধ্যে বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী ও নগর যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আবদুল কাদের (মাছ কাদের) রয়েছেন।

মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ১টার দিকে নগর গোয়েন্দা পুলিশ ও ডবলমুরিং থানা পুলিশ যৌথভাবে ৩ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করেছে বলে জানান ডবলমুরিং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুদীপ কুমার দাশ।

তিনি বলেন, গোলাগুলিতে আজগর আলী বাবুল সর্দার নিহত হওয়ার ঘটনায় আবদুল কাদেরসহ ২৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের নগরীর মনসুরাবাদস্থ ডিবি কার্যালয়ে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে রাত ১০টার দিকে র‌্যাব-পুলিশের শতাধিক সদস্যের টিম নগরীর পাঠানটুলীস্থ মাছ কাদেরের বাড়িসহ পুরো এলাকা ঘেরাও করে অভিযান শুরু করে।

উল্লেখ্য সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাতে পোষ্টার ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারী) রাত সাড়ে ৮টার দিকে ২৮ নম্বর পাঠানটুলি ওয়ার্ডের মগপুকুর পাড় এলাকায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাহাদুর এবং বিদ্রোহী আবদুল কাদেরের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলি শুরু হয়। একপর্যায়ে দু’জন গুলিবিদ্ধ হলে তাদের হাসপাতালে নেয়ার পথে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী ও নজরুল ইসলাম বাহাদুর সমর্থক আজগর আলী বাবুল সর্দার (৫২) মারা যান।

প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাহাদুর বলেন, রাতে গণসংযোগকালে পাঠানটুলীর মগপুকুর এলাকায় বিদ্রোহী প্রার্থী আবদুল কাদেরের অনুসারীরা সশস্ত্র হামলা চালায়। এসময় গুলি করে স্থানীয় মহল্লার সর্দার বাবুলকে হত্যা করেছে। আমাকে বাঁচাতে গিয়ে এসময় যুবলীগ কর্মী মাহবুব গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

বাংলাধারা/এফএস/এআর

ট্যাগ :

close