বাংলাদেশ, ৮ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

তিন দিনের ধর্মঘটের পর সচল হয়েছে খাতুনগঞ্জ ও বন্দর

প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর, ২০২১

শাহ আব্দুল্লাহ আল রাহাত»

জ্বালানী তেল বৃদ্ধির প্রতিবাদে ৫ নভেম্বর থেকে ৭২ ঘন্টার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিলো  ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।১৫ দফা দাবি পূরণের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে সংগঠনটি।৭ নভেম্বর বিকেলে ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেয় তারা।

টানা তিন দিনের ধর্মঘটে অনেকটা অচলঅবস্থায় পরিণত হয় সারাদেশ।এর প্রভাব পড়েছে অর্থনীতি থেকে শুরু করে সবজায়গায়।দেশের আমদানি রপ্তানির প্রধান স্থান চট্টগ্রাম বন্দরে এর প্রভাব পড়েছে চরম আকারে।কোনো কাভার্ড ভ্যান,ট্রাক চলাচল না করায় গন্তব্যস্থলে পৌঁছায় নি আমদানিকৃত কোনো কন্টেইনার।এছাড়া চট্টগ্রাম বন্দরে প্রবেশ করে নি কোনো পণ্যবাহী গাড়ী।চট্টগ্রামে ১৯ টি আইসিডির মধ্যে সক্রিয় ১৭ টি আইসিডির মধ্যে রপ্তানীমুখী কোনো কন্টেইনার গুলো জাহাজীকরণ হতে বেগ পেতে হয়েছে।প্রায় ৯ হাজার  ৭শ টিইইউ পণ্য জাহাজীকরণের অপেক্ষায় আটকে ছিলো।সেখানে ৩ হাজার কোটি টাকার পণ্য আটকে ছিলো।তবে রবিবার সন্ধ্যা থেকে সচল থেকে শুরু করে চট্টগ্রাম  বন্দর সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব বাংলাধারাকে জানান ধর্মঘটের কারণে বন্দরে গাড়ি প্রবেশ না করলেও সোমবার থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে সচল হয়েছে গাড়ি চলাচল এবং আগের মতো স্বাভাবিক নিয়মে চলছে বন্দরের কার্যক্রম।

করোনা মহামারীর পর অর্থনীতির স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করছে পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলো।সেখানে ধর্মঘট দেশের অর্থনীতির জন্য অনেক নেতিবাচক।বাংলাদেশে করোনা মহামারীতে সবচেয়ে উদ্বিগ্ন দেশের তৈরী পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠান গুলো।করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ওঠে পড়ে লেগেছে বিজিএমইয়ের নেতৃবৃন্দ।তবে ধর্মঘটের কারণে তৈরি পোশাক রপ্তানির লিড টাইমে পড়েছে নেতিবাচক প্রভাব।এছাড়া তৈরী পোশাকের কাঁচামাল আনা নেওয়ায় পড়েছে নেতিবাচক প্রভাব।ধর্মঘট প্রত্যাহারে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেও তিন দিনের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কাজ করে যাচ্ছে বিজিএমইএ। চট্টগ্রামের বাণিজ্য পাড়া খ্যাত খাতুনগঞ্জে সারাদেশ থেকে আসা নিয়মিত ২ হাজারের ট্রাক ও কার্ভাডভ্যান লোড আনলোড হয়।কিন্তু ধর্মঘটের কারণে কোনো গাড়িই প্রবেশ  করতে পারেনি সেখানে।রোববার সন্ধ্যা ৭ টার পর থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত গাড়ী প্রবেশে আবরো শুরু হয়।ধর্মঘটের ৯০ শতাংশ ক্রেতার সংখ্যা কমে গিয়েছিলো সেখানে।সোমবার সকাল থেকে আগের মতো জমজমাট হতে শুরু করেছে চট্টগ্রামের এই বাণিজ্যপাড়া।চট্টগ্রামের খাতুন গঞ্জের ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ বলেন,খাতুন গঞ্জে আবারো ফিরে এসেছে প্রাণ। টানা তিনদিনের ধর্মঘটের কারণে ক্রেতাশূন্য খাতুনগঞ্জে ফিরেছে স্বাভাবিক পরিস্থিতি।

ট্যাগ :

close