গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার নিবন্ধিত। রেজি নং-০৯২

রেজিঃ নং-০৯২

ডিসেম্বর ১, ২০২২ ৩:১৩ অপরাহ্ণ

বন্দরে বৈঠক— ধর্মঘট প্রত্যাহার করল লাইটারেজ শ্রমিকরা

বাংলাধারা প্রতিবেদক >

পতেঙ্গা চরপাড়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ডায়া কর্মবিরতি প্রত্যাহার করেছেন লাইটার শ্রমিকরা। ঘাটের ইজারা বাতিলের প্রক্রিয়া শুরু এবং লাইটারেজ শ্রমিকদের কাছ থেকে ঘাটে টাকা না নেওয়ার আশ্বাস দেওয়ায় তারা কর্মবিরতি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেন।

শুক্রবার (১১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বন্দর ভবনে স্থানীয় সংসদ সদস্য, বন্দর চেয়ারম্যান, লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়ন, লাইটারেজ শ্রমিক ফেডারেশন ও ঠিকাদার সমিতির নেতাদের সভায় কর্মবিরতি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয়।

এর আগে শুক্রবার সকাল থেকে লাইটারেজ জাহাজে পণ্য পরিবহণ বন্ধ করে দেয় লাইটারেজ শ্রমিকরা। বন্দর চেয়ারম্যান ও পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) প্রত্যাহারসহ ৫ দফা দাবিতে কর্মবিরতি পালন করেছেন লাইটার শ্রমিকরা। ফলে চট্টগ্রাম থেকে সারা দেশে নৌপথে লাইটারেজ জাহাজে পণ্য পরিবহণ বন্ধ হয়ে যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মো. ওমর ফারুক বলেন, বন্দর ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় লাইটার শ্রমিকদের কর্মবিরতি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। ঘাট সম্পর্কিত লাইটার জাহাজ শ্রমিকদের যে দাবি ছিল তা বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া শুরুর আশ্বাস দেওয়ায় তারা কর্মবিরতি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেন।

শ্রমিকদের অভিযোগ, চরপাড়া ঘাট ইজারা দেওয়ার পর থেকে ইজারাদারের লোকজন শ্রমিকদের বিভিন্নভাবে হেনস্থা করে আসছে। গত ৩ নভেম্বর ইজারাদারের লোকজন আট-নয় জন শ্রমিককে মারধর করে। কিন্তু ওই ঘটনায় পুলিশ প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

এ ছাড়া, বন্দরের কাছে এই ঘাটের ইজারা বাতিলের দাবি জানালেও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এর প্রতিবাদে চরপাড়া ঘাটের সামনে থেকে সব লাইটারেজ জাহাজ পারকির চর এলাকায় নিয়ে যায় নৌযান শ্রমিকরা।

পারকির চর এলাকায় অবস্থানরত নৌযান থেকে শ্রমিকরা বিমানবন্দর সড়কের শেষ মাথায় চাইনিজ ঘাট ব্যবহার করে ওঠানামা করতে শুরু করে। এ ঘাটটিও গতকাল বৃহস্পতিবার উচ্ছেদ করে বন্দর কর্তৃপক্ষ। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা বিকেলে বাংলাবাজার এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ করে লাইটার জাহাজে পণ্য ওঠানো-নামানো ও পরিবহণ বন্ধের ডাক দেয়।

কর্মবিরতির ফলে বিদেশ থেকে গম, চাল, ডাল, ছোলা, চিনি, তেল, ক্লিংকার ইত্যাদি খোলা পণ্য বড় জাহাজে বহির্নোঙরে (সাগরে) আনা হয়। সেখান থেকে বিভিন্ন গুদাম, ঘাট, ডিপো, শিল্প-কারখানায় এসব পণ্য নিয়ে যায় লাইটারেজ জাহাজ। লাইটার জাহাজ শ্রমিকদের কর্মবিরতির কারণে দিনভর খোলা পণ্য খালাস ও পরিবহন কার্যত বন্ধ ছিল।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on telegram
Telegram
Share on skype
Skype
Share on email
Email

আরও পড়ুন

অফিশিয়াল ফেসবুক

অফিশিয়াল ইউটিউব

YouTube player