গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার নিবন্ধিত। রেজি নং-০৯২

রেজিঃ নং-০৯২

ডিসেম্বর ১, ২০২২ ৪:০৬ অপরাহ্ণ

জার্মানিকে হারিয়ে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় অঘটন জাপানের

ক্রীড়া ডেস্ক »

গতকাল সৌদি আরবের কাছে আর্জেন্টিনার হারের ‘শক’টা কাটেনি এখনো। এরই মধ্যে আরও এক অঘটন দেখল কাতার বিশ্বকাপ। জাপান হারিয়ে দিল জার্মানিকে। শুরুতে পিছিয়ে পড়েও শেষের ঝলকে ২-১ গোলের দারুণ এক জয় তুলে নিয়েছে এশিয়ার দলটি।

‘ফুটবল একটি সরল খেলা। যেখানে ২২ জন ৯০ মিনিট বল তাড়া করে এবং শেষে এসে জার্মানরা জিতে’—সাবেক ইংলিশ ফুটবলার এবং বর্তমান ফুটবল বিশ্লেষক গ্যারি লিনেকার এমনটাই বলেছিলেন জার্মানির ফুটবল নিয়ে। তবে সময় পাল্টেছে। বিশেষ করে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের পরে হাওয়া বদল হয়েছে। দুঃস্বপ্ন যেন পিছুই ছাড়ছে না জার্মানির। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়া জার্মানির কাতার বিশ্বকাপের শুরুটাও সুখকর হলো না। এবারে জাপানের দুর্দান্ত ফুটবলের কাছে হার মানতে হলো জার্মান মেশিনদের।

কাতারের খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে শুরুতে পিছিয়ে পড়েও দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনে ২-১ গোলের ব্যবধানে ম্যাচ জিতে নিয়েছে জাপান। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে জার্মানিকে লিড এনে দেন ইয়াকি গুন্দোয়ান। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৭৫ মিনিটে জাপানকে সমতায় ফেরান রিতসু দোয়ান আর ৮৩তম মিনিটে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের থমকে দেন তাকুমা আসানো। তার গোলেই শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

এর আগে জাপানের বিপক্ষে খেলা চার ম্যাচে অপরাজিত ছিল জার্মানি। যার মধ্য দুটি জয় আর দুটি ম্যাচে ড্র করেছিল দুই দল। এবার প্রথমবারের মতো জার্মানির বিপক্ষে জয়ের স্বাদ পেল জাপান। আর সেই জয়ও এলো বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে বড় মঞ্চ ফুটবল বিশ্বকাপে।

ম্যাচের প্রথমার্ধে জার্মানি ৮১ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের জন্য মোট ১৪টি শট নেয় যার ভেতর পাঁচটিই ছিল লক্ষ্যে। অন্যদিকে জাপান শট নিতে পেরেছিল মাত্র একটি। শুরু থেকে একের পর এক আক্রমণে জাপানের রক্ষণকে স্বস্তিতে থাকতে দেয়নি জার্মানি।

ম্যাচের আট মিনিটের মাথায় প্রথমে লিড নিয়েছিল জাপান। মিডফিল্ডার জুনিয়া ইতোর ক্রস থেকে ডি বক্সে বল পেয়ে জালে পাঠান ফরোয়ার্ড ডেদাইজেন মায়েদা। তবে সে দফায় অফসাইডের কারণে বাতিল হয়ে যায় গোলটি।

এরপর থেকেই জার্মান পাওয়ার ফুটবলের শক্তি প্রদর্শন গোটা প্রথমার্ধ জুড়ে। মুহুর্মুহ আক্রমণে জাপানের রক্ষণকে তছনছ করে দিচ্ছিল জার্মানরা। ১৬ মিনিটের মাথায় অ্যান্টোনিও রুডিগারের হেড সামান্যের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। মিনিটে চারেক পর জশুয়া কিমিচের শট দারুন দক্ষতায় রুখে দেন জাপানিজ গোলরক্ষক। ম্যাচের ২৯তম মিনিটে দূর থেকে গুন্দোয়ানের শট সহজেই ঠেকান জাপান গোলরক্ষক শুইচি গোন্দা। একটু পর ডাভিড রাউমের শট তিনি ঠেকানোর পর আলগা বল পেয়ে শট নেন গুন্দোয়ান তবে আটকে দেন ডিফেন্ডার মায়া ইয়োশিদা।

দারুণ সব আক্রমণ করলেও জাপানের রক্ষণের ডেডলক ভাঙতে পারছিল না জার্মানি। ৩৩তম মিনিটে সফল স্পট-কিকে জার্মানিকে এগিয়ে নেন গুন্দোয়ান। রাউমকে গোলরক্ষক গোন্দা ফাউল করলে পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। এরপর প্রথমার্ধের নির্ধারিত সময় শেষে যোগ করা অতিরিক্ত সময়ে সার্জ গ্ন্যাব্রির কাছ থেকে পাওয়া বল আলতো টোকায় জালে জড়ান কাই হার্ভাটজ তবে অফসাইডের কারণে বাতিল হয় গোলটি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on telegram
Telegram
Share on skype
Skype
Share on email
Email

আরও পড়ুন

অফিশিয়াল ফেসবুক

অফিশিয়াল ইউটিউব

YouTube player